আজঃ মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

এবারের হজে এ পর্যন্ত ৩১ বাংলাদেশির মৃত্যু

প্রকাশিত:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

চলতি বছর হজ করতে গিয়ে এখন পর্যন্ত ৩১ বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২০ জুন) রাতে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের হজবিষয়ক প্রতিদিনের বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এর মধ্যে ২৫ জন পুরুষ ও ছয়জন নারী। মক্কায় মৃত্যু হয়েছে ২৪ জনের। মদিনায় ৪, জেদ্দায় ১, মিনায় ২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে, হজের সময় বিভিন্ন দেশের ১ হাজার ৮১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও নিখোঁজ রয়েছেন অনেক হজযাত্রী। এদের মধ্যে অধিকাংশের মৃত্যু হয়েছে তীব্র গরমের কারণে হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সৌদি আরবের জাতীয় আবহাওয়া কেন্দ্র জানিয়েছে, চলতি সপ্তাহে মক্কার মসজিদুল হারামে তাপমাত্রা ৫১ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত উঠে যায়। তীব্র গরমের কারণেই এবার এতজনের মৃত্যু হয়েছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

আরব কূটনীতিকরা ফরাসি বার্তাসংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন, তীব্র গরমে এখন পর্যন্ত মিশরের মোট ৬৫৮ জন মারা গেছেন। এদের মধ্যে ৬৩০ জনই অনিবন্ধিত ছিলেন। মিশর থেকে এ বছর ৫০ হাজার ৭৫২ জন নিবন্ধিত হয়ে হজ করেছেন।

নিবন্ধিত হয়ে হজ করতে যাওয়াটা ব্যয়বহুল হওয়ায় প্রতিবছর হাজার হাজার মানুষ অনিয়মিত চ্যানেলে হজের চেষ্টা করেন। নিবন্ধন না থাকায় তারা শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত এলাকায় থাকতে পারেন না।

এদিকে, হজে এতজনের মৃত্যুর পর প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে একটি ক্রাইসিস সেল গঠন করেছেন মিশরের প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ এল-সিসি। পাকিস্তানের প্রায় দেড়লাখ হজযাত্রীর মধ্যে এখন পর্যন্ত ৫৮ জন মারা গেছেন বলে জানিয়েছেন দেশটির এক কূটনীতিক।


আরও খবর



রাজধানীতে নববধূকে দলবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৭

প্রকাশিত:রবিবার ৩০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ৩০ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

স্বামীর সঙ্গে ঘুরতে এসে অপহরণ ও পরবর্তীতে দলবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক নববধূ। শনিবার (২৯ জুন) এ ঘটনার মূল হোতাসহ ৭ আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে খিলক্ষেত থানা পুলিশ।

পুলিশ জানায়, নববধূকে জোরপূর্বক ধরে নিয়ে বনরূপা এলাকার ঝোপঝাড়ের মধ্যে নিয়ে মারধর করে এবং ৩ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। একপর্যায়ে তারা ভিকটিমের স্বামীকে ছেড়ে দেয় মুক্তিপণের টাকা আনার জন্য। ভিকটিমের স্বামী ওই স্থান ত্যাগ করে ৯৯৯ এ কল দিয়ে পুলিশের সহায়তা চায়। এর মধ্যে আসামিরা ভিকটিমকে বিভিন্নভাবে মারধর করে ও শারীরিক নির্যাতন করে। ভিকটিম তাদেরকে কাঁদতে কাঁদতে না মারার জন্য বারবার অনুরোধ করে। আসামিরা ভিকটিমের আর্তনাদ কর্ণপাত না করে ভিকটিমের ওপর অমানুষিক অত্যাচার চালিয়ে যেতে থাকে। একপর্যায়ে আসামিরা ভিকটিমকে ধর্ষণ করে। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আসামিরা পালিয়ে যায়।

এসি ক্যান্টনমেন্ট জোন শেখ মুত্তাজুল ইসলামের নেতৃত্বে খিলক্ষেত থানার কয়েকটি টিম এ অভিযান পরিচালনা করেন।

শেখ মুত্তাজুল ইসলাম বলেন, ওই নববধূ শুক্রবার সন্ধ্যায় তার স্বামীর সঙ্গে ঘুরতে বের হন। তারা খিলক্ষেত থানা এলাকার ঢাকাময়মনসিংহ মহাসড়কের বনরূপা এলাকায় গেলে সেখানে আবুল কাশেম ওরফে সুমন নামের এক ব্যক্তির নেতৃত্বে সাতজনের দল তাদের অপহরণ করে। ভুক্তভোগী নববধূ ও তার স্বামীকে বনরূপা এলাকার ঝোপঝাড়ের ভেতরে নিয়ে যান দুর্বৃত্তরা। পরে স্বামীর কাছে মুক্তিপণ দাবি করেন তারা। মুক্তিপণের টাকা আনার জন্য ছেড়ে দিলে তিনি বেরিয়ে এসে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে ফোন দেন। পুলিশ খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে বনরূপা এলাকায় যায়। পুলিশ সদস্যদের উপস্থিতি টের পেয়ে দুর্বৃত্তরা ঝোপঝাড়ের ভেতরে বারবার তাদের অবস্থান পরিবর্তন করতে থাকেন। ভোর ৪টার দিকে পুলিশ সেখান থেকে ভুক্তভোগী নববধূকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যান।

ভুক্তভোগীর সঙ্গে কথা বলে পুলিশ জানতে পারে তিনি ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। পুলিশ কর্মকর্তা মুত্তাজুল ইসলাম বলেন, ওই নারী পুলিশকে জানিয়েছেন, চারজন দুর্বৃত্ত তাকে ধর্ষণ করেন।

পুলিশের গুলশান বিভাগের ডিসি রিফাত রহমান শামীম বলেন, শুক্রবার রাতে ঘটনাটি জানানোর পরপরই অভিযান শুরু হয়। গ্রেপ্তাররা দলবদ্ধ ধর্ষণের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন। জড়িত একজন ওই নববধূর পূর্ব পরিচিত।

নিউজ ট্যাগ: দলবদ্ধ ধর্ষণ

আরও খবর



পিরোজপুরে পিকআপ ভ্যানের ধাক্কায় মামি-ভাগ্নি নিহত

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মশিউর রহমান রাহাত, পিরোজপুর

Image

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া-মঠবাড়িয়া সড়কের ইকড়ি বাসস্ট্যান্ডে পিকআপ ভ্যানের ধাক্কায় এক নারী ও এক শিশু নিহত হয়েছে। এ দুর্ঘটনায় আরও ৪ জন গুরুতর আহত হয়েছেন।

আজ সোমবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার দক্ষিণ ইকড়ি বাসস্ট্যান্ডে এ দুর্ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত ৪ জনকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নিহতরা হলেন- উপজেলার দক্ষিণ ইকড়ি গ্রামের আবু হাসান হাওলাদারের স্ত্রী ঝুমাইয়া আক্তার (৩২) ও আবু হাসান হাওলাদারের শ্যালিকার মেয়ে হাওয়া (৭)।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আজ সোমবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে দক্ষিণ ইকড়ি গ্রামের আবু হাসান হাওলাদার তার স্বজনদের চট্টগ্রামগামী বাসে উঠিয়ে দেওয়ার জন্য সড়কের পাশে বাসের অপেক্ষা করছিলেন। এ সময় মঠবাড়িয়া থেকে আসা মোবাইল টাওয়ারের বিদ্যুৎ সংযোগের কাজে নিয়োজিত একটি পিকআপ ভ্যান বেপরোয়া গতিতে তাদেরকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে অন্তঃসত্বা ঝুমাইয়া বেগম ও শিশু হাওয়া আক্তার নিহত হন।

এ সময় আহত হন- ইয়াসিন (৫), মায়া বেগম (৩৫), হাফিজা আক্তার মিষ্টি (২৮), আবু হাসান হাওলাদার (৩২)। আহতদের প্রথমে ভাণ্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদেরকে বরিশাল শের-ই- বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ভাণ্ডারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবির মোহাম্মদ হোসেন জানান, দুর্ঘটনার পর পিকআপ ভ্যান জব্দ করা হয়েছে। গাড়িটির চালক তোফায়েল হোসেনকে আটক করা হয়েছে। আটক তোফায়েল সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি উপজেলার তুয়ার ডাঙ্গা গ্রামের মোত্তালেব গাইনের ছেলে। এ ঘটানায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।


আরও খবর



বিএনপির অবস্থান ভারতের বিরুদ্ধে নয়, শেখ হাসিনা সরকারের বিরুদ্ধে: ফখরুল

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বিএনপির অবস্থান ভারতের বিরুদ্ধে নয়, শেখ হাসিনা সরকারের বিরুদ্ধে বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষায় বিএনপি সব সময় সোচ্চার বলেও দাবি করেন তিনি। মঙ্গলবার (২৫ জুন) গুলশানে দলের চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রীর সম্প্রতি ভারত সফরে দেশটির সঙ্গে হওয়া সকল চুক্তি বিএনপি প্রত্যাখ্যান করেছে জানিয়ে ফখরুল বলেন, সরকার সব সময় ভারতকে সকল সুবিধা দিলেও, নিজেদের ন্যায্য হিস্যা আদায় করতে ব্যর্থ হয়েছে।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত করছে সরকার। তার মুক্তির দাবিতে শিগগিরই কর্মসূচি ঘোষণা দেয়া হবে।


আরও খবর
ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪




প্রশ্নফাঁসকাণ্ডে জড়িত পিএসসির এক ডজন রাঘববোয়াল

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) প্রশ্নফাঁসে এর ভেতর এবং বাইরে এক ডজন রাঘববোয়াল জড়িত রয়েছেন। তাদের কয়েকজন গ্রেফতার হলেও অন্যরা এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে। সন্দেহভাজন এসব রাঘববোয়ালের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ এবং অতীত কর্মকাণ্ডের বিষয়াদি পর্যালোচনা করছে সিআইডিসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একাধিক ইউনিট। তারা প্রশ্নফাঁস চক্রের মূলোৎপাটনের লক্ষ্যে তদন্ত অব্যাহত রেখেছেন।

সূত্র জানিয়েছে, প্রশ্নফাঁস চক্রে জড়িতদের প্রায় প্রত্যেকেই কোটি কোটি টাকার মালিক। আলোচিত সাবেক গাড়িচালক আবেদসহ গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিং আইনে মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছে সিআইডি।

সিআইডির একজন কর্মকর্তা বলেন, শুরু থেকেই মানুষের মাঝে একটা পারসেপশন ছিল বিসিএস এবং পিএসসির পরীক্ষাসমূহের সঙ্গে যুক্ত সবাই নীতিবান। যে কারণে এসব পরীক্ষায় কোনো দুর্নীতি হয় না, প্রশ্নপত্র ফাঁস হয় না। কিন্তু এক যুগ ধরে প্রশ্নফাঁসের যে অভিযোগ সামনে এসেছে-তা সত্যিই ভাবিয়ে তুলেছে। তিনি বলেন, এই চক্রকে নির্মূল করা না গেলে ক্ষতিগ্রস্ত হবে রাষ্ট্র। তিনি জানান, পিএসসি আইনে মামলার পাশাপাশি তাদের বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিং আইনেও মামলার প্রস্তুতি রয়েছে।

রেলওয়ের একটি নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় গত সোমবার পিএসসির ছয় কর্মকর্তা কর্মচারীসহ ১৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়। এর মধ্যে আলোচিত ড্রাইভার আবেদ আলীকে ১০ বছর আগে প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে চাকরিচ্যুত করা হয়েছিল। পল্টন থানায় দায়ের করা মামলায় মঙ্গলবার সাবেক গাড়িচালক আবেদ আলী, ডেসপাস রাইটার খলিলুর রহমান ও অফিস সহায়ক সাজেদুল ইসলামসহ ছয়জন দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। তারা গত এক যুগ ধরে বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসসহ (বিসিএস) পিএসসির আরও কয়েকটি নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস করার কথা স্বীকার করেন। গ্রেফতার পিএসসির কর্মকর্তাসহ যারা স্বেচ্ছায় জবানবন্দি দেননি তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে রিমান্ড আবেদন করেছে সিআইডি। সিআইডি সূত্র জানিয়েছে, তাদের আরেকবার রিমান্ডে পেলে ভেতরে বাইরে প্রশ্নফাঁস চক্রের যত রাঘববোয়াল আছে, তাদের চিহ্নিত করা সম্ভব হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, বিভিন্ন সময়ে প্রশ্নফাঁসে জড়িত পিএসসির বিভিন্ন পর্যায়ের আরও পাঁচ কর্মকর্তা-কর্মচারীর নাম সামনে এসেছে। তারাও বিভিন্ন সময়ে ক্যাডার ও নন-ক্যাডার পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসে সংশ্লিষ্ট ছিলেন।

এদিকে মামলায় অভিযুক্ত সাবেক উপ-সহকারী পরিচালক নিখিল চন্দ্র রায়সহ ১৪ জনকে গ্রেফতারে সিআইডির অভিযান অব্যাহত রয়েছে। তবে এখনো তাদের গ্রেফতারের আওতায় আনা যায়নি। সূত্র জানিয়েছে, এই চক্রের সদস্য সংখ্যা ৬০ জনের অধিক। এর মধ্যে ডজনের অধিক রাঘববোয়াল। তাদের কেউ কেউ পিএসসিতে বহালতবিয়তে আছেন। আবার কেউ অবসরে গেছেন বা চাকরিচ্যুত হয়েছেন। আর চক্রের অন্য যারা আছেন, তারা মূলত কেউ প্রার্থী জোগাড় করেন, কেউবা দরদাম ঠিক করেন। কেউবা আবার পরীক্ষার্থীদের গোপন আস্তানায় নিয়ে পড়ান।

তদন্তসংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, পিএসসির উপ-পরিচালক মো. আবু জাফর ও মো. জাহাঙ্গীর আলম এবং সহকারী পরিচালক মো. আলমগীর কবিরকে রিমান্ডে পেলে প্রশ্নফাঁসে জড়িত অন্য রাঘববোয়ালদের নাম সামনে আসতে পারে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জুয়েল চাকমা বলেন, মামলা তদন্তাধীন। এই মুহূর্তে কোনো মন্তব্য করা সমীচীন হবে না। তদন্ত শেষ হলে বিস্তারিত জানানো হবে।

পিএসসির যুগ্ম সচিব আবদুল আলীম খান বলেন, আমরাও তদন্ত চলমান রেখেছি। সবাইকে সন্দেহের তালিকায় রেখেই আমরা কাজ এগিয়ে নিচ্ছি। আশা করি তদন্ত প্রতিবেদনে ভালো কিছু দিতে পারব। তিনি বলেন, তদন্তকাজ আমরা স্বাধীনভাবেই চালিয়ে যাচ্ছি।

এদিকে গত মঙ্গলবার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে সাবেক গাড়িচালক আবেদ আলীসহ ছয়জন প্রশ্নফাঁস চক্রের অনেক তথ্যই ফাঁস করে দিয়েছেন। তাদের স্বীকারোক্তিতে বেরিয়ে এসেছে রাঘববোয়াল অনেকের নামও। এসব তথ্য সামনে রেখে কাজ করছে সিআইডি।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, পিএসসিতে কর্মকর্তা পর্যায়ের কিছু লোক প্রশ্ন ফাঁস করতেন। আর তাদের সহযোগী হিসাবে কাজ করতেন কর্মচারীরা। চক্রে বাইরের যারা জড়িত তারা প্রার্থী সংগ্রহ, টাকার চুক্তিসহ বিভিন্ন দায়িত্বে ছিলেন। অডিটর প্রিয়নাথ রায় আবেদ আলীকে বিভিন্ন পরীক্ষার সাড়ে ৪০০ প্রার্থী জোগাড় করে দিয়েছেন বলে তিনি আদালতের কাছে স্বীকার করেছেন। এসব প্রার্থীর প্রত্যেকের সঙ্গে ১৮ থেকে ২০ লাখ টাকায় চুক্তি করেছেন প্রিয়নাথ। গ্রেফতার নোমান সিদ্দিকী লক্ষ্মীপুরের রামগতি থানার চর আলগি গ্রামের আবু তাহেরের ছেলে। ২০০৪ সালে পিএসসির প্রশ্নপত্র ফাঁসকারী চক্রের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে বিভিন্ন চাকরির তদবির করতেন তিনি। তখন এক বন্ধুর মাধ্যমে পরিচয় হয় অডিটর প্রিয়নাথ রায়ের সঙ্গে। এরপর ফাঁস হওয়া প্রশ্ন বিক্রি করে নোমান ঢাকার পাশেই একটি গার্মেন্টস কারখানার মালিক হয়েছেন। এছাড়া তার রয়েছে প্লট, ফ্ল্যাটসহ বিপুল সম্পদ।

পিএসসির অফিস সহায়ক সাজেদুল ইসলামের সঙ্গে বন্ধুত্ব ছিল পানির ফিল্টার ব্যবসায়ী সাখাওয়াত হোসেনের। সাজেদুলের প্ররোচনায় সাখাওয়াত ও তার ভাই সায়েম হোসেন এই চক্রের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন। ৪৬ জন চাকরিপ্রত্যাশীকে সাখাওয়াতের গুদামে নিয়ে ফাঁস করা রেলওয়ের প্রশ্ন পড়ানো হয়।

আর সাবেক গাড়িচালক সৈয়দ আবেদ আলী তো প্রশ্ন ফাঁস করে বনে গেছেন শতকোটি টাকার মালিক। প্রশ্নফাঁসে গ্রেফতার পিএসসির উপপরিচালক মো. আবু জাফরের বাড়ি পটুয়াখালীর গলাচিপার কলাগাছিয়ায়।

আবু জাফর বেশ কয়েক বছর ধরে স্ত্রী জ্যোতির নামে মালিবাগের চৌধুরী পাড়ায় একটি কোচিং সেন্টার চালাচ্ছেন। যেখানে সরকারি চাকরিপ্রত্যাশীরা কোচিং করতেন।

উল্লেখ্য, প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে গত ৮ জুলাই রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে আবেদ আলীসহ মোট ১৭ জনকে গ্রেফতার করে সিআইডি। প্রশ্নফাঁসের ঘটনায় ওই রাতে রাজধানীর পল্টন থানায় বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন আইনে সিআইডির এসআই নিপ্পন চন্দ্র চন্দ মামলা করেন। মামলায় ৩১ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৫০-৬০ জনকে আসামি করা হয়েছে।


আরও খবর
মেট্রোরেল চলাচল পুরোপুরি বন্ধ

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪




ট্রাম্পকে গুলি করা যুবক রিপাবলিকান পার্টির নিবন্ধিত ভোটার

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

নির্বাচনী প্রচারণায় সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ওপর গুলি চালানো টমাস ম্যাথিউ ক্রুকস রিপাবলিকান পার্টির নিবন্ধিত ভোটার ছিলেন।

রোববার (১৪ জুলাই) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া অঙ্গরাজ্য পর্যায়ের একটি ভোট-সংক্রান্ত নথিতে দেখা গেছে, টমাস ম্যাথিউ ক্রুকসের জন্ম ২০০৩ সালের ২০ সেপ্টেম্বর। ওই নথি অনুযায়ী, তিনি ট্রাম্পের রিপাবলিকান পার্টির নিবন্ধিত একজন ভোটার। সেই সঙ্গে ভোটার স্ট্যাটাসের ঘরে ক্রুকসকে সক্রিয় হিসেবে লেখা হয়েছে।

শনিবার (১৩ জুলাই) যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যে নির্বচনী প্রচার সমাবেশে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে লক্ষ্য করে গুলি করা হয়। গুলির শব্দ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ট্রাম্প মঞ্চে বসে পড়েন। পরে গোয়েন্দা সংস্থার তাকে টেনে তুললে তার কান ও মুখমণ্ডল দিয়ে রক্ত ঝরতে দেখা যায়। পরে ট্রাম্প উঠে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেন তখন ট্রাম্প মুষ্টিবদ্ধ হাত ওপরে তুলে বলে ওঠেন, ফাইট, ফাইট, ফাইট!

প্রত্যক্ষদর্শী হামলার ঘটনার বর্ণনায় বলেছেন, ট্রাম্পের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা সিক্রেট সার্ভিস টিম মুহূর্তের মধ্যে গুলি করে হামলাকারীর মাথা উড়িয়ে দিয়েছিল।

এদিকে দেশটির কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা (এফবিআই) জানিয়েছে, হামলাকারীর ২০ বছর বয়সী থমাস ম্যাথিউ ক্রুকস। বিবিসির খবর বলছে, হামলাকারী ক্রুকস পেনসিলভানিয়ার বেথেল পার্ক এলাকার বাসিন্দা। বাটলার থেকে এই শহরের দূরত্ব ৭০ কিলোমিটার। গুলির এই ঘটনাকে হত্যাচেষ্টা ধরে তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছে সিক্রেট সার্ভিস।

এতো নিরাপত্তার মধ্যে কিভাবে এমন হামলার ঘটনা ঘটলো তা নিয়ে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, ডোনাল্ড ট্রাম্পের ওপর হামলাকারী যুবকের দিকে আগে থেকেই নজর ছিল স্নাইপারের। তাহলে কেন এই ঘটনা ঘটল? কেন আগেই শুটারকে থামানো গেল না।

মার্কিন প্রশাসন সূত্রে খবর, ট্রাম্প যেখানে দাঁড়িয়ে বক্তব্য দিচ্ছিলেন, তার থেকে মাত্র দেড়শো মিটার দূরে ছিলেন হামলাকারী। একটি এক তলা বাড়ির ছাদে উঠে গুলি চালান তিনি। জোসেফ নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী যুবক বলেন, আমি পর পর অনেকগুলো গুলির শব্দ শুনতে পেয়েছিলাম। আমার পাশের এক ব্যক্তি গুলি খেয়ে লুটিয়ে পড়েন। তার ঠিক মাথায় গুলি লেগেছিল। আর এক মহিলাকেও দেখলাম বসে পড়তে। তার হাতে গুলি লেগেছে।

বিবিসিকে এক প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, তিনি হামলাকারীকে বন্দুক হাতে এক তলা বাড়ির ছাদে উঠতে দেখেছিলেন। তিনিই চিৎকার করে নিরাপত্তা বাহিনীকে সতর্ক করেন। কিন্তু তার আগেই ট্রাম্পকে লক্ষ্য করে গুলি চালিয়ে দেন। তবে তিনি লক্ষ্যভ্রষ্ট হন।

প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, সিক্রেট সার্ভিস টিম হামলাকারীর মাথায় গুলি করে। তার পর তারা হামাগুড়ি দিয়ে ছাদে উঠেছিল। হামলাকারীর মৃত্যু নিশ্চিত করতে বন্দুক তাক করেই এগোচ্ছিল টিম। কিন্তু ততক্ষণে হামলাকারীর মৃত্যু হয়েছিল।


আরও খবর
আজ নেলসন ম্যান্ডেলার জন্মদিন!

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪