আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ মে ২০২১
শিরোনাম

হাজার ঔষধি গুণে ভরপুর বেল

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ এপ্রিল ২০২১ | ১২৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বেল পুষ্টিগুণে ভরপুর একটি ফল। এর শরবত খেলে কী কী উপকার পাওয়া যায় জানেন? বেলে আছে নানান ঔষধি গুণ, যা আমাদের দেহের অনেক উপকার করে থাকে। প্রাচীন সময় থেকেই আয়ুর্বেদ শাস্ত্রে পাকাপোক্ত জায়গা করে করে নিয়েছিল বেল। এছাড়া, গরমে ঠাণ্ডা এক গ্লাস বেলের শরবত নিমেষেই প্রাণ জুড়িয়ে দেয়। তাই বেল খেয়ে থাকুন সুস্থ। তাহলে জেনে নিন বেলের উপকারিতা।

কোষ্ঠকাঠিন্য

নিয়মিত বেল খেলে এর ল্যাকোটিভগুণ কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে ও মুখের ব্রণ দূর হয় এবং ত্বক ভালো থাকে। টানা ৩ মাস যদি আপনি বেল খান, তাহলে আপনি সহজেই মুক্তি পেতে পারেন এই সমস্যা থেকে।

আলসারের ওষুধ

আলসারের ওষুধ হিসেবে খেতে পারেন বেল। পাকা বেলের শাঁসে সেই ফাইবার আছে, যা আলসার উপশমে খুবই কার্যকরী। সপ্তাহে তিনদিন খান বেলের শরবত। এছাড়া বেলের পাতা সারারাত পানিতে ভিজিয়ে রেখে পরের দিন খেলেও অনেকংশে কমে আলসার।

ডায়াবেটিস কমায়

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখে বেল। পাকা বেলে আছে মেথানল নামের একটি উপাদান, যা ব্লাড সুগার কমাতে অনবদ্য কাজ করে। তবে শরবত করে নয়, বেল খেতে হবে এমনিই।

আর্থ্রাইটিস কমাতে

ব্যাথা ছাড়া এখন খুব কম মানুষই আছেন। আর্থ্রাইটিসের কারণ ও করণীয় সম্পর্কে আমরা অনেকেই তেমন কিছু জানি না। তবে নিয়মিত বেল খেলেই মুক্তি পাবেন আর্থ্রাইটিসের সমস্যা থেকে।

এনার্জি বাড়ায়

পুষ্টিবিদেরা বলছেন, ফাইবারেব ভরপুর বেল হজম ক্ষমতা বাড়ায়। এনার্জি বাড়াতে বেলের ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ১০০ গ্রাম বেল ১৪০ ক্যালোরি এনার্জি দেয়। এছাড়াও বেল মেটাবলিক স্পিড বাড়ায়।

ব্লাড প্রেসার কমায়

ব্লাড প্রেসার বেড়ে যাওয়ার কারণে চিন্তায় রয়েছেন? এ সময় বেল খেলে দূর হবে এই সমস্যা? ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে রাখতে বেলের জুড়ি মেলা ভার।

ক্যানসারেও খুব উপকারি

ক্যানসারেও খুব উপকারি এই বেল। বেলে রয়েছে অ্যান্টি প্রলেফিরেটিভ ও অ্যান্টি মুটাজেন উপাদান।


আরও খবর



দিল্লিতে এক সপ্তাহের কারফিউ জারি

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ এপ্রিল ২০২১ | ১০৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
সিনিয়র সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে জরুরি বৈঠকে বসেন লেফটেন্যান্ট গভর্নর অনিল বৈজাল ও রাজ্য মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। এরপরই এমন ঘোষণা আসলো

ভারতে মহামারি করোনাভাইরাসের উর্ধ্বমুখী সংক্রমণের কারণে রাজধানী দিল্লিতে কারফিউ জারি করা হয়েছে। আজ সোমবার (১৯ এপ্রিল) রাত থেকে শুরু হয়ে আগামী সপ্তাহের সোমবার সকাল পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত কার্যকর থাকবে। গতকাল রবিবার এ ঘোষণা দিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। এ খবর জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রবিবার দিল্লিতে কোভিড-১৯ এর বর্তমান সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ে সিনিয়র সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে জরুরি বৈঠকে বসেন লেফটেন্যান্ট গভর্নর অনিল বৈজাল ও রাজ্য মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। এরপরই এমন ঘোষণা আসলো।

করোনায় ভারতের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত রাজ্যের তালিকায় দিল্লি অন্যতম। আগে থেকেই সেখানে রাত ১০টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত রাত্রিকালীন কারফিউ জারি করা ছিল। যা আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে। এর মধ্যেই এবার ২৪ ঘণ্টার কারফিউ জারি করা হলো।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্তের দিক দিয়ে পূর্বের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে ভারতের রাজধানী। একদিনের ব্যবধানেই শনাক্ত হয়েছে ২৫ হাজার ৪৬২ জন। প্রতি ৩টি রিপোর্টের মধ্যে একজনের দেহে ভাইরাসটি শনাক্ত হচ্ছে।

অন্যদিকে, একদিনের ব্যবধানে আবারও করোনায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত ও মৃত্যুর মুখোমুখি হলো ভারত। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ২ লাখ ৭৩ হাজার ৮১০ জনের শরীরে ভাইরাসটি শনাক্ত করা হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন ১ হাজার ৬১৯ জন মানুষ।


আরও খবর



আদালতে স্থগিতাদেশ নেই কিন্তু নিয়োগ আটকে আছে

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৮ এপ্রিল ২০২১ | ৯৮৬জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) নিয়োগবিধিতে বলা আছে যে উপসহকারী প্রকৌশলী পদের জন্য আবেদনের যোগ্যতা পুরকৌশলে অন্যূন দ্বিতীয় শ্রেণির ডিপ্লোমা। একই যোগ্যতা চাওয়া হয়েছিল বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগ এবং স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের একই পদে লোকবল নিয়োগের জন্য। সব মিলিয়ে ৬২৭টি পদের জন্য প্রায় দুই বছর আগে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। কিন্তু নিয়োগপ্রক্রিয়া চলাকালে কয়েকজন প্রার্থীর হাইকোর্টে রিট আবেদনের কারণে পুরো নিয়োগপ্রক্রিয়াই আটকে আছে। যদিও আদালত স্থগিতাদেশ দেননি।

এরই মধ্যে সবগুলো পদের লিখিত পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। এলজিইডির ২৬৩ পদের জন্য লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষাও নেওয়া হয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) সুপারিশ না পাওয়ায় এসব পদেও লোক নিয়োগ করা যাচ্ছে না। এতে ছয় হাজার ৬১৩ জন চাকরিপ্রার্থীর ভবিষ্যত্ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

এলজিইডি বলছে, মাঠ পর্যায়ে তাদের উপসহকারী প্রকৌশলীর তীব্র সংকট চলছে। এ অবস্থায় নিয়োগ আটকে থাকায় তাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে।

অন্যদিকে পিএসসি বলছে, বিষয়টি বিচারাধীন থাকায় তাদের কিছু করার নেই।

২০১৯ সালের ১৭ এপ্রিল বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন সচিবালয় (নন-ক্যাডার) বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগে বিভিন্ন পদে লোকবল নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি (নম্বর-১১-৫৬) দেয়। এরই মধ্যে অন্য সব পদের বেশির ভাগেই লোক নিয়োগ হয়ে গেছে। কিন্তু এলজিইডির ২৬৩, বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের ১৭২ এবং স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের ১৭২টি উপসহকারী প্রকৌশলীর পদ ও একই অধিদপ্তরের ২০ এস্টিমেটর পদে নিয়োগ স্থগিত রয়েছে।

জানা গেছে, লিখিত পরীক্ষার পর পিএসসি প্রার্থীদের সব কাগজপত্র দেখে বিভিন্ন কারণে ১৬১ জনকে অযোগ্য ঘোষণা করে। এর মধ্যে ১১০ জনকে অযোগ্য ঘোষণা করা হয় পুরকৌশলে ডিপ্লোমা না থাকায়। এই প্রার্থীরা কনস্ট্রাকশন টেকনোলজি ও অন্যান্য বিষয়ে ডিপ্লোমাধারী। তাঁদের মধ্যে ৮৬ জন গত বছরের ৭ ডিসেম্বর হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন। তাঁরা দাবি করেন যে তাঁদের ডিপ্লোমা পুরকৌশলের সমমানের। উচ্চ আদালত গত ২৮ ডিসেম্বর আবেদনকারীদের কেন মৌখিক পরীক্ষায় ডাকা হবে না জানতে চেয়ে রুল জারি করেন। রুলে সাত বিবাদীকে চলতি বছরের ২১ জানুয়ারির মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়েছে। এর আগেই গত ১৫ ডিসেম্বর থেকে পিএসসি এলজিইডির উপসহকারী প্রকৌশলী পদের মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া শুরু করে। গত ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত পরীক্ষা নেওয়া হয়। মৌখিক পরীক্ষা দিয়েছেন দুই হাজার ২০৯ জন প্রার্থী, যাঁরা এখন ফল পাওয়ার জন্য অপেক্ষায় রয়েছেন।

তবে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের একই পদে চাকরিপ্রার্থী তিন হাজার ৪২ জনের মৌখিক পরীক্ষা আটকে গেছে। স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরেও একই পদের জন্য এক হাজার ১২৫ জন প্রার্থী মৌখিক পরীক্ষা দেওয়ার জন্য অপেক্ষায় আছেন। একই অধিদপ্তরের এস্টিমেটর পদে মৌখিক পরীক্ষার জন্য ২৩৭ জন অপেক্ষায় আছেন।

এলজিইডি সূত্র জানায়, মৌখিক পরীক্ষা নেওয়ার আগে পিএসসি যোগ্যতার বিধি সংক্রান্ত জটিলতার বিষয়টি স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে জানায়। সেখান থেকে এলজিইডিকে জানিয়ে মতামত চাওয়া হয়। তখন এলজিইডি নিয়োগবিধিতে যা দেওয়া আছে, সে অনুযায়ী নেওয়ার জন্য মত দেয়।

এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী (প্রশাসন) মো. শরীফ উদ্দিন বলেন, যেখানে একটি উপজেলায় চারজন করে উপসহকারী প্রকৌশলী থাকার কথা, সেখানে বেশির ভাগ জায়গায় আছে দুজন। কোথাও কোথাও একজনও রয়েছে। জটিলতার বিষয়ে তিনি বলেন, পিএসসি আমাদের চিঠি দিয়ে জানায়, মৌখিক পরীক্ষার ফল প্রকাশের আগেই যেন আইনি পদক্ষেপ নিয়ে বিষয়টি নিষ্পত্তি করা হয়। পরবর্তীতে আমরা একটা পক্ষ হয়ে উকিল নিয়োগ করেছি। একটি শুনানিও হয়েছে।

এলজিইডির আইনজীবী মিন্টু কুমার মণ্ডল বলেন, হাইকোর্টে রিট পিটিশন করা হলেও কোনো স্থগিতাদেশ দেননি আদালত। এর পরও পিএসসি নিয়োগ আটকে রেখেছে।

রিটকারী শিক্ষার্থীদের একজন রাকিবুল ইসলাম দাবি করেন, কারিগরি বোর্ড আমাদের সিভিলের (পুরকৌশল) সমমান দিয়েছে। সে জন্য আবেদন করেছি। পিএসসি জেনে-বুঝে সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকে; যার কারণে আমরা পরীক্ষা দিয়ে মৌখিক পর্যন্ত যেতে পেরেছি। এখন কোনো সমাধান না পাওয়ায় রিট করতে হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: এলজিইডি

আরও খবর



ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে বিজিবির তিন চেকপোস্ট

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ মে ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৯ মে ২০২১ | ১০৩জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ঘাটে যাত্রীদের আসা ঠেকাতে এরই মধ্যে বর্ডার গার্ড অব বাংলাদেশ (বিজিবি) মোতায়েন করা হয়েছে। জেলার মোট তিনটি জায়গায় বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে।

ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে মানিকগঞ্জের প্রবেশপথ বারোবাড়ীয়া ও শিবালয়ের টেপরা এবং হেমায়েতপুর-সিংগাইর আঞ্চলিক সড়কের ধল্লা এলাকায় বিজিবির তিন প্লাটুন সদস্য দায়িত্ব পালন করছে।

এ ছাড়া পাটুরিয়া ফেরি ঘাট এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পাটুরিয়া ঘাটের পল্টুন ঘিরে রেখেছে পুলিশ। সেখানে দায়িত্ব পালন করছেন শিবালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ফিরোজ কবির।

রবিবার সকাল থেকে পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় যাত্রীর চাপ খুব একটা দেখা যায়নি। সেইসঙ্গে সবগুলো পল্টুনে ফেরি পারাপার বন্ধ থাকলেও একটি ঘাট থেকে শুধু মাত্র জরুরি সেবার জন্য ফেরি পারাপার চালু রাখা হয়েছে। ওই ঘাট এলাকায় তিন-চারশ যাত্রীকে অপেক্ষারত দেখা গেছে।


আরও খবর



আজ বৃষ্টি হতে পারে

প্রকাশিত:শনিবার ০১ মে ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০১ মে ২০২১ | ১১৪জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
সারাদেশের দিনের তাপমাত্রা কিছুটা হ্রাস পেতে পারে। গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এছাড়া রাজশাহী, গোপালগঞ্জ, মাদারীপুরসহ একাধিক এলাকায় ৩৭ ডিগ্রির ওপরে তাপমাত্রা বয়ে

দেশের বেশ কিছু অঞ্চলে অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, শনিবার অস্থায়ীভাবে আকাশ আংশিক মেঘলা এবং আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।

শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) রাতে দেশের বেশকিছু অঞ্চলে বৃষ্টি হওয়ার জন্য তাপমাত্রা কমতে শুরু করেছে। এছাড়া শনিবার সকল থেকে আরও কিছু এলাকায় বৃষ্টি হতে পারে। কুষ্টিয়া ও কুমিল্লা অঞ্চলসহ রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

তাপমাত্রার কথা বলা হয়েছে, সারাদেশের দিনের তাপমাত্রা কিছুটা হ্রাস পেতে পারে। গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এছাড়া রাজশাহী, গোপালগঞ্জ, মাদারীপুরসহ একাধিক এলাকায় ৩৭ ডিগ্রির ওপরে তাপমাত্রা বয়ে গেছে। পাশাপাশি একাধিক এলাকায় ৩৬ ডিগ্রি তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়।


আরও খবর



অক্সিজেন ফুরিয়ে গেছে ইন্দোনেশিয়ার নিখোঁজ সাবমেরিনে

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ এপ্রিল ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ এপ্রিল ২০২১ | ১২২জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
অন্তত ছয়টি যুদ্ধজাহাজ ও একটি হেলিকপ্টার এবং ৪০০ জন কর্মী উদ্ধারকাজে নিয়োজিত রয়েছেন। অস্ট্রেলিয়া, মালয়েশিয়া, ভারত ও সিঙ্গাপুর এতে সহযোগিতা করছে। অন্যদিকে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি

সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে উদ্ধার কার্যক্রম অব্যহত রেখেছেন ইন্দোনেশিয়ার নৌবাহিনীর নিখোঁজ সাবমেরিন উদ্ধারে নিয়োজিতরা। সাবমেরিনটিতে শনিবার ভোর ৩টা নাগাদ অক্সিজেনের মজুত থাকার কথা জানায় ইন্দোনেশিয়ার সামরিক বাহিনী। ফলে উদ্ধারের চূড়ান্ত পর্যায় পেরিয়ে গেছে এরই মধ্যে। যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ কথা জানিয়েছে।

কেআরআই নাংগালা ৪০২ সাবমেরিনটি বালি দ্বীপের উপকূল থেকে ৬০ মাইল (৯৬ কিলোমিটার) দূরের সমুদ্রে অনুশীলনকালে গত বুধবার ভোর রাতে নিখোঁজ হয় বলে ধারণা করা হচ্ছে। ৫৩ জন ক্রুসহ সাবমেরিনটি সমুদ্রের গভীরে তলিয়ে যাওয়ার পর বিস্ফোরণ বা বিধ্বস্তের মতো কিছু ঘটে থাকতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

কয়েকটি সূত্র বলেছে, সাবমেরিনটি গভীর পানিতে ডুব দেওয়ার পরই যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। কেআরআই নাংগালা-৪০২ ইন্দোনেশিয়ার পাঁচটি সাবমেরিনের মধ্যে একটি।

বৃহস্পতিবার রাতে সামরিক বাহিনী জানায়, ঘটনাস্থলের ৫০ থেকে ১০০ মিটার গভীরতায় কোনো একটি বস্তুর আলামত মিলেছে। সেখানে সনার-ট্র্যাকিং সরঞ্জামসহ উদ্ধারকারী জাহাজ মোতায়েন করা হয়েছে।

অন্তত ছয়টি যুদ্ধজাহাজ ও একটি হেলিকপ্টার এবং ৪০০ জন কর্মী উদ্ধারকাজে নিয়োজিত রয়েছেন। অস্ট্রেলিয়া, মালয়েশিয়া, ভারত ও সিঙ্গাপুর এতে সহযোগিতা করছে। অন্যদিকে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি এ ঘটনায় সহমর্মিতা জানিয়ে সহযোগিতা করার অভিপ্রায় ব্যক্ত করেন।

ফার্স্ট অ্যাডমাইরাল জুলিয়াস উইদজোজনো বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, নৌবাহিনী এটিকে খুঁজছে। এই অঞ্চলটি আমাদের পরিচিত, তবে এটি বেশ গভীর।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, এটি ১৯৭০ এর দশকের শেষের দিকে তৈরি করা হয়েছিল। মাঝখানে মেরামতের জন্য এক হাজার ৩৯৫ টন ওজনের এই সাবমেরিনটিকে দক্ষিণ কোরিয়ায় নিয়ে যাওয়া হয়। দুই বছর পর ২০১২ সালে এটির মেরামত কাজ শেষ হয়।

ইন্দোনেশিয়ায় সাবমেরিন নিখোঁজের ঘটনা এই প্রথম। তবে পৃথিবীর অন্যান্য দেশে এমন ঘটনার নজির রয়েছে। ২০০০ সালে রাশিয়ার নৌবাহিনীর সাবমেরিন কারস্ক ১১৮ জন ক্রু নিয়ে ব্যারেন্টস সাগরে হারিয়ে যায়। পরে তদন্তে জানা যায়, প্রথমে সাবমেরিনটিতে থাকা একটি টর্পেডো বিস্ফোরণ হয়, যা থেকে বিস্ফোরিত হয় অন্য টর্পেডোগুলোও। এই দুর্ঘটনায় ১১৮ জন ক্রুর বেশির ভাগ সঙ্গে সঙ্গে মারা গিয়েছিলেন, আর বাকিরা কয়েকদিন বেঁচে থাকলেও শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যায় মারা যান।

এ ছাড়া ২০০৩ সালে অনুশীলনকালে ৭৯ জন চীনা ক্রু নিয়ে দেশটির একটি সাবমেরিন দুর্ঘটনায় সবার মৃত্যু হয়। আর, ২০১৭ সালে আর্জেন্টিনার সামরিক বাহিনীর একটি সাবমেরিন দক্ষিণ আটলান্টিক মহাসাগরে ৪৪ জন ক্রুসহ ডুবে যায়। বছরখানেক পর সাবমেরিনটির ধ্বংসাবশেষ পাওয়া যায় এবং জানা যায় এটি কোনো কিছুর সঙ্গে সংঘর্ষে বিধ্বস্ত হয়েছিল।


আরও খবর